প্রবেশ করুন

    
প্রবেশ

কবি আশিক আকবর ও শওকত হোসেন এর কবিতা

কবি আশিক আকবরের লেখনী (কবিতা ও গদ্য কবিতা)

ছেড়ে যাবার পর ০১

ছেড়ে যাচ্ছি জানালা , ছেড়ে যাচ্ছি চেয়ার , ছেড়ে যাচ্ছি টেবিল ,
বারান্দা , বারান্দার সিঁড়ি ,

আমাদের প্রতিবাদ করতেই হবে…

হায় বাংলাদেশ!
এই বুঝি তোর স্বাধীনতার জয় গান।
বিবেকবাণের জাগ্রত বিবেকে
এখানে এখন লেগেছে আগুন।

কসম তোমার, ঈশ্বর-আল্লাহ আর ভগবানের
একটু হেঁটে দেখ অতীতের স্মৃতি…

ওহে

কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা ও দরিয়া পারের ভূমিপুত্র কাহিনী : মতিন বৈরাগী ও মো. সফিকুল ইসলাম

যতোদূর বাংলা ভাষা ততোদূর এই বাংলাদেশ

অসামান্য সুন্দর ব্যাঞ্জনাময় এই পঙক্তি । ষাট দশক থেকে শুরু করে আজও অবধি যে ক’জন মেধাবী কবি বাংলা কাব্য-ভূবন কাঁপিয়ে কবিতা নির্মাণে মেধার

কবি আলমগীর রেজা চৌধুরী রনজু রাইম রাজু আলীম ও জিনিয়া চৌধুরীর কবিতা

আলমগীর রেজা চৌধুরীর কবিতা

আসবে
সমস্ত কিছুতে ঢকে যাচ্ছে তোমার চোরকাঁটা বিস্তার
সত্ত্বা ব্যাপী কল্লোলিত জলের মৃণ্ময় সংঘাত ।
অনন্ত থেকে তুমি আসবে
কী করে ফেরাবে

পদাতিকের ‘সৈয়দ বদরুদ্দীন হোসাইন স্মৃতি নাট্যোৎসব’

প্রতি বছরের ধারাবাহিকতায় এবারও সৈয়দ বদরুদ্দীন হোসাইন স্মৃতি নাট্যোৎসব ও স্মারক সম্মাননা প্রদান করতে যাচ্ছে থিয়েটার দল পদাতিক নাট্য সংসদ।

৭ থেকে ১১ এপ্রিল, ২০১৬ পর্যন্ত ৫ দিনব্যপী এ নাট্যযজ্ঞ

নির্মলেন্দু গুণ ও মৃত্তিকা গুণ এর কবিতা

নির্মলেন্দু গুণ আবার যখনই দেখা হবে

আবার যখনই দেখা হবে, আমি প্রথম সুযোগেই
বলে দেব স্ট্রেটকাটঃ ‘ভালোবাসি’।
এরকম সত্য-ভাষণে যদি কেঁপে ওঠে,
অথবা ঠোঁটের কাছে উচ্চারিত শব্দ

প্রাঙ্গণেমোর, বটতলা, বিশ্ব পুতুলনাট্য দিবস ও জাবি নাট্যবিভাগের সংবাদ

প্রাঙ্গণেমোর

দীর্ঘ পাঁচ বছর পর নাটক সরণির (বেইলি রোড) ঐতিহাসিক মহিলা সমিতি মিলনায়তনে আবার শুরু হয়েছে নাটক মঞ্চায়ন। সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশানের আয়োজনে ‘ভাঙ্গা-গড়া নাট্যোৎসব’ শিরোনামে

বাংলাদেশের কবিতা ও ছোটগল্প : মাঈন উদ্দিন জাহেদ

বাংলাদেশের কবিতা ও ছোটগল্প

বাংলাদেশ কোনটি? সাতচল্লিশ পরবর্তী না একাত্তর পরবর্তী, তা চিহ্নিত নয়।সাহিত্যে বাংলাদেশের কিছু নিয়ে লিখতে গেলে, তা চিহ্নিত করণ জরুরী।স্বাধীনতার পয়তাল্লিশ বছর পর যখন

হে চন্দনা পাখি: পিতা ও পুরুষের হাহাকার – মাঈন উদ্দিন জাহেদ

হে চন্দনা পাখি: পিতা ও পুরুষের হাহাকার

মাঈন উদ্দিন জাহেদ

‘হে চন্দনা পাখি’ উপন্যাস পড়ে পা?কের মনে প্রশ্ন জাগবে এ প্রজন্মের প্রেম, ভালোবাসা, ভালোলাগা কী অনেক বেশী

চলে গেলেন বাংলা সাহিত্যের অন্যতম জনপ্রিয় কবি রফিক আজাদ

ভাত দে হারামজাদা
ভীষণ ক্ষুধার্ত আছি: উদরে, শরীরবৃত্ত ব্যেপে
অনুভূত হতে থাকে- প্রতিপলে- সর্বগ্রাসী ক্ষুধা
অনাবৃষ্টি- যেমন চৈত্রের শষ্যক্ষেত্রে- জ্বেলে দ্যায়
প্রভুত দাহন- তেমনি ক্ষুধার জ্বালা,