কল্যান গাঙ্গুলী ও মৌসুমী রায়(ঘোষ)এর কবিতা

সাহিত্য বাজার

অ…শুভ দীপাবলী

কল্যান গাঙ্গুলী

আজকের চাঁদ, করে প্রতিবাদ, তাই বুঝি অমানিশা;
ঘনায় হৃদয়ে, ব্যথাতুর হয়ে, হারায় পথের দিশা॥
মননেতে বিষ, বাঁচার হদিস, দিতে আসে ফেরীওয়ালা;
তাই বিকিকিনী, স্বপ্ন কাহিনী, নিবারণে মন জ্বালা॥
যদি রাজনীতি, স্বীয় জয় গীতি, মনুষ্যত্ব বিজয়,
শুখনো পিয়াঁজ, হারিয়েছে ঝাঁঝ, যদিও ১০০ হয়॥
চিন্তিত মন, তাই বিনোদন আনিত কেবল লাইন;
রাজনের রোষ, ফাঁকা রাজকোষ ঘোষিল নূতন আইন॥
সমাগত ক্ষন, মনোরজ্ঞন, এখন হইতে ফাইন;
অকারন ক্ষুধা, বড় অসুবিধা, অনাচার রুপী ডাইন।
হাড়ি কড়াই, বাঁচার লড়াই,মিথ্যার ইতিহাস,
অতি সহাস্যে, খাদ্যশস্যে,নূতন আইন পাশ।
রন্ধন ক্রিয়া, গ্যাসেরে ত্যাজিয়া, আজ নয়া ফরমান;
ফিরে আয় কাঁচা, পরিপাক ধাচা, আজ যাক অবসান।

আলোর পিছনে
মৌসুমী রায়(ঘোষ)

নামী প্যান্ডেলের প্রতিমা,
ভীড়ের মাঝে লাইনে অপেক্ষারত,
সঙ্গে পরিবার, সন্তান| তাদের সাজিয়েছি
মনের মতো, সেজেছি নিজে| চারিদিকে
মানুষের ঢল, আলোর রোশনাই,
সুরের মূর্ছনা| সবাই ভীষন খুশী,
হাসছে অকারণেই| উত্‍সবের আয়োজন
সর্বত্র| আমিও চাইছিলাম আনন্দিত হতে,
কিন্তু মনটা ভারাক্রান্ত হচ্ছিলো বারবার|
না চাইতেও কী এক তাগিদে, দৃষ্টি ছুটে
যাচ্ছিলো সুসজ্জিত ভীড়ের এক পাশে-
সেখানে এক দীর্ণ ভীখারিনী বৃষ্টি থেকে
বাঁচাতে তার মাটির শয্যায় শায়িত শিশুকে
ঢেকে দিচ্ছিলো, ছেঁড়া পলিথিনের চাদরে|

Print Friendly