আইরীন নিয়াজী মান্না’র অনুছড়া

অতিথি লেখক

02অণুছড়া-৮৬

আমি চমকে চমকে থমকে দাড়াই
তোদের ছবি দেখে,
আমি মধুর সুরেতে অনেক দূরেতে
স্বপ্ন যাই একে।

আমি চমকে চমকে হাত যে বাড়াই
সোনালি সে শৈশব,
শৈশবের ওই বন্ধু-স্বজন আজ যে-
তোরা কই সব!
………..০৭.০৮.২০১৬………..

অণুছড়া-৮৭

বানের জলে ভাসছে
সোনা দেশ
তলিয়ে গেছে ফসল
যা যা ছিলো
অভাবে তো জীবন
আমার শেষ
রাক্ষুসে বান প্রাণ যে
কেড়ে নিলো।
…১০.০৮.২০১‌৬….

অণুছড়া-৮৮

মা আমায় বলতো ডেকে
আয়রে ‘অনু’ আয়
তোকে নিয়ে হারিয়ে যাবো
নীলের সীমানায়।

সত্যি মা যে হারিয়ে গেলো
আর এলো না ফিরে
একা-একা প্রহর গুনি
সন্ধ্যা নদীর তীরে।
…….১৮.০৮.২০১৬…….

অণুছড়া-৮৯

ঘাসফড়িং আর পাখির মেলা
নদীর জলে নীলের খেলা
আকাশপাড়ে মেঘের ভেলা।
শরত এলো কাশের বনে
দুর্গাপূজার গন্ধ।

ধুপের ধোঁয়ায় মন্ত্র পড়া
মন যে কেমন উদাস করা
স্মৃতির পাখি দিচ্ছে ধরা।
কাঁসার ঘন্টা বাজছে দূরে
মনজুড়ে আনন্দ।
……২২.০৮.২০১৬……..

অণুছড়া-৯০

টাকা নাই, টাকা নাই
বাকী খাই, বাকী খাই।
করি নাতো চিন্তা
নাচি শুধু ধীন তা।
কি হবে আহা রে
চলে যাবো পাহাড়ে।
২৩.০৮.২০১৬

অণুছড়া-৯১
আইরীন নিয়াজী মান্না
বাবা তুমি কেমন ছিলে
কেমন তোমার হাসি,
বাবা তুমি জানলে নাগো
তোমায় ভালোবাসি!

বাবা তোমার স্মৃতি আজ
ঝাপসা হয়ে আসে,
একা হাঁটি জীবন পথে
দু’চোখ জলে ভাসে।

বাবা তুমি হারিয়ে গেলে
ছোট্ট ছিলাম সেই,
সবার বাবা পাশে আছে
তুমিই শুধু নেই।
……২৫.০৮.২০১৬……

অণুছড়া-৯২

দুরন্ত সে স্বপ্ন পাগল
ঘুরতো শহরজুড়ে,
হঠাত করে মাকে ছেড়ে
চলে গেলো দূরে।

কেনো গেলো দূর বিদেশে
তা ঠিক জানে না,
মাকে ছেড়ে একলা থাকা
মন তো মানে না।
……২৬.০৮.২০১৬……

অণুছড়া-৯৩

ওকে আর চিঠি লিখে লাভ নেই,
ওর সাথে আমার আর ভাব নেই।

ওর সাথেই আজ বেশি দ্বন্ধ,
তাই তো সব যোগাযোগ বন্ধ।
……….২৮.০৮.২০১৬………..

 

Print Friendly