প্রবেশ করুন

    
প্রবেশ

Category Archives: পদাবলী

মায়ের স্বপ্নগুলো হেঁটে বেড়ায়

বেহুদা রাত্রির ভৎর্সনায় দাঁড়িয়ে যায় স্মৃতির মিনার
বিরহ সংগীত শুনে বোধের আঙ্গুল গুণে স্তন চুষতে থাকে দু্গ্ধপোষা শিশু
উত্যক্ত রাত্রির নাগরিক শোকে আমার মা হয়ে গেছে

মাহফুজ রিপন এর কবিতা

দরিয়া পাড়ের দরদে আমরা যাচ্ছিলাম
মাহফুজ রিপন
ধানসিঁড়ির পাড় দিয়ে আমরা যাচ্ছিলাম।
শিমুল ফোটা ভোরে, আমরা যাচ্ছিলাম।

দরিয়া পাড়ের দরদে-
আমরা যাচ্ছিলাম ।

সারি সারি নিম

শাকিলা তুবা, মোকসেদুল ইসলাম, শফিকুল ইসলাম ও আরিফ আহমেদ এর কবিতা

ত্রসরেণু
শাকিলা তুবা

জলীয় বাষ্প মানেই হাওয়া হওয়া জল
তুমি কি আছ? নাকি জলের মতই বাষ্প?
বাতাসে কর্পুর গন্ধ ভাসে
তুমি মিশে গেছ নোনা হাওয়ায়

অজয় দাশগুপ্ত, আজিম আকাশ এবং আরিফ আহমেদ এর কবিতা

অজয় দাশগুপ্ত এর কবিতা

ওল্ডহোমের জননী আমার

রেলিং ধরে ব্যালকনিতে দাঁড়িয়েছিলে একা
আকাশজুড়ে থমথমে মেঘ? নাকি, মুখের বলিরেখা?

তোমার মুখে মায়ের মুখ তোমার ঠোঁটে ব্যঙ্গ
সন্ধ্যা যখন

রহমান হেনরী, দেবাশীষ দাশ, অনুপ দত্ত ও কামরুল ইসলামের কবিতা

রহমান হেনরী, দেবাশীষ দাশ, অনুপ দক্ক ও কামরুল ইসলামের কবিতা

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

ঈদ সংখ্যার কবিতা (ছয়জনের কবিতা)

ঈদ সংখ্যার সাহিত্য বাজার ম্যাগাজিন প্রকাশ হচ্ছে না। তাই কবিতাগুলো এখানে দেখুন।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আরিফ আহমেদ এর কিছু কবিতা

ও ভাই মুসলমান

সকাল থেকে সন্ধ্যা
অভুক্ত থাকা আর বিপদে দু’একবার
স্রষ্টাকে ডাকা-ই যদি রোজা থাকা হয়
তবে বাপু আমি আজন্ম রোজদার।
বিগত দু’টি বছর পেটপুড়ে

সৌম্য সালেক এর কিছু কবিতা

সাড়া

আমার প্রাণে জাগলো যখন ঢেউ
তোমার কোলে নিভু নিভু তারা
যখন আমি ছিলাম দিশাহারা
তোমার মতো দেখলো না আর কেউ ।

আমার হলে জাগতে তুমি রাত

আজিম আকাশ এর দুটি কবিতা

ভয়াবহ অন্ধকার
এই ভয়াবহ অন্ধকার, এই বিভৎস সংকট
আর কত জাতির বাতাস করবে দূষিত,
কী বিভৎস আঁধারের গর্ভে গোটাদেশ
আজ দিকবিদিক অসীম নিমজ্জিত।
কত দুর্যোগ,

সৌম্য সালেক এর কবিতা

বনসাই সংস্করণ
দু’চারজন অভ্যাগত আর আমাদের ঘরবাসিরার বিনোদনে সঙ্গ দিতে গিয়ে এ্যাকুরিয়ামের মাছগুলি বেঁচে চলছে বছরকে বছর ।
পানির উদ্দাম তোড় লেগে লাফিয়ে উঠার কথা তারা ভুলে গেছে