হাইজ্যাক হয়ে গেল নির্বাচন : হুমকীর মুখে বাংলাদেশের গণতন্ত্র

আরিফ আহমেদ

02 Ministerসংবিধান, সংবিধান আর সংবিধান

জান বাঁচানো ফরজ

বলেছে যখন পবিত্র কোরআন

তার চেয়েও কি বড় এই সংবিধান?

শত মানুষের লাশের উপর দাঁড়ালো যে সংবিধান

তাকে ছিড়ে ফেলে তৈরি হোক নতুন মঙ্গলবিধান।

তা না হলে এ দেশের সংবিধান হোক

বেদ, ত্রিপিটক, বাইবেল আর কোরআন।

সংবিধানের দোহাই দিয়ে জবর দখলকৃত নির্বাচনে বিজয়ী আওয়ামী লীগ ও মহাজোট। অজ্ঞাত কারণে নবম সংসদ বলবৎ রেখেই নতুন সরকারের মন্ত্রীসভা বন্টন ও শপথ গ্রহণ সমাপ্ত হল। এরপরপরই গণমাধ্যমে দেয়া নবনিযুক্ত মন্ত্রীদের অনেকের বক্তব্যে রীতিমত স্তম্ভিত দেশবাসী। মন্ত্রীদের কেউ কেউ বেশ জোর গলায় বলছেন- জনগণ তাদের ৫ বছরের জন্য নির্বাচিত করেছে কিম্বা ৫ বছরের মধ্যে নির্বাচন অবশ্যই হবে। যদিও এ সময় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও এলজিআরডি মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফ স্বীকার করলেন যে, নির্বাচনের আগে মহাসচিব পর্যায়ের সংলাপ ফলপ্রসু হয়েছিল, কিন্তু মহাজোটের শরিকদের মতামতকে গুরুত্ব দেয়ার কারণে তারা আর এগোতে পারেন নি।

এই প্রথম সৈয়দ আশরাফ স্বীকার করলেন, বিএনপি বড় দল এবং তাদেরও লক্ষ লক্ষ সদস্য রয়েছে।

অথচ একই সময়ে এই সরকারের নবনিযুক্ত সমাজ কল্যাণ মন্ত্রীর উদ্যতপূর্ণ আচারণ ও বিএনপিকে বিনাশ করার ইচ্ছার প্রকাশও দেশবাসী দেখলো হতবাক হয়ে।

01 Bnpপুরো বিষয়টি এখনো ঘোলাটে। বিএনপি তার আন্দোলনের ধারা পরিবর্তন করতে যাচ্ছে তা পরিস্কার। মঙ্গলবার পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সাঃ) উপলক্ষ্যে দুদিন আগে থেকেই তাদের আন্দোলনে নবনীতি এসেছে। অবরোধ স্থগিত করা হয়েছে, জোটের শরিক কর্ণেল অলি আহমদ জানিয়েছেন, ১৮ দলের পরবর্তী কর্মসূচি নিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া খুব শীঘ্রই সংবাদ সম্মেলন করবেন।

এদিকে বিএনপির বিশ্বস্ত একটি সূত্র জানিয়েছেন যে, সাধারণ মানুষের নিরাপত্তার বিষয়টি মাথায় রেখে বিশ্ব ইজতেমা পর্যন্ত আন্দোলনে ছাড় দেবে ১৮ দলীয় জোট।

 

এমনাবস্থায় সাধারণ মানুষ কি ভাবছেন?

ফেসবুক থেকে
Peer hপীর হাবিব was tagged in a photo.
DrHassan Mahmud Mamun

ধন্যবাদ ও সাধুবাদ …………………
“জন নেত্রী শেখ হাসিনা”

প্রথমে ধন্যবাদ আপনাকে – তৃতীয় বারের মত প্রধান মন্ত্রীর দায়িত্ব ভার গ্রহন করায়।

দ্বিতীয়ত, একটি সাবলীল ও কার্যকর ডিজিটাল মন্ত্রী সভার উপস্থাপন করায়।

আর সাধুবাদ এই কারণে,
আমাদের হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী, বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের সুযোগ্যা কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা যে কাজটি করতে পেরেছে, বিশ্বের অনেক হেভিয়েট দেশের রাষ্ট্রপ্রধান গণ এর মাঝে ও এই প্রকারের বিশেষ করে এত মন্ত্রী সভার সদস্যদের পরিবর্তন করার দুঃসাহস যে নেই।

জয় বাংলা; জয় বঙ্গবন্ধু।

রফিকুল ইসলাম

বোর্ডবাজার

গাজীপুর

গাজীপুরে বোর্ডবাজার সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দা রফিকুল ইসলাম ইমেইল বার্তায় জানান, দেশের নতুন সরকার হয়েছে। জবর দখলকৃত এ সরকারকেও শুভেচ্ছা অভিনন্দন না জানিয়ে উপায় নেই। কারণ দেশের অন্তত চল্লিশভাগ মানুষ আওযামী লীগের সমর্থক। যদিও এই চল্লিশভাগের ১০ ভাগ মানুষও এবার তাদের সমর্থিত দলকে ভোট দিতে ব্যর্থ হয়েছেন। তবুও এ সরকারের কাছে আমাদের প্রত্যাশা সাবর আগে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক করুন। হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর এ যাবৎ যত হামলা-নির্যাতন হয়েছে সেগুলোর সুষ্ঠ বিচার সম্পন্ন করুন এবং ২ মাসের মধ্যে পরবর্তী নির্বাচন নিশ্চিত করুন্।

IMG0026Aসায়েম বিশ্বাস

কাটাবন

ঢাকা

কিছু দলকানা ছাড়া সবাই বুঝে এখন তত্তাবধক সরকার এখন কতটা জরুরি দেশকে স্থিতিশীল করতে । সেখানে এই ধরনের এক দলীয় সরকার গঠন দেশকে হুমকির মুখে ফেলবে । আওয়ামিলীগ তার শেষ চেষ্টা করতে যাচ্ছে ক্ষমতায় থাকার জন্য । আমি আওয়ামী লীগের সমর্থক ও কর্মী তবু এটাকে সমর্থন করিনা। নেত্রীর উচিৎ যত তাড়াতাড়ি সম্ভব পরবর্তী নির্বাচন স্থির করা।

 

 

Print Friendly

About the author

ডিসেম্বর ৭১! কৃত্তনখোলার জলে সাঁতার কেটে বেড়ে ওঠা জীবন। ইছামতির তীরঘেষা ভালবাসা ছুঁয়ে যায় গঙ্গার আহ্বানে। সেই টানে কলকাতার বিরাটিতে তিনটি বছর। এদিকে পিতা প্রয়াত আলাউদ্দিন আহমেদ-এর উৎকণ্ঠা আর মা জিন্নাত আরা বেগম-এর চোখের জল, গঙ্গার সম্মোহনী কাটিয়ে তাই ফিরে আসা ঘরে। কিন্তু কৈশরী প্রেম আবার তাড়া করে, তের বছর বয়সে তের বার হারিয়ে যাওয়ার রেকর্ডে যেন বিদ্রোহী কবি নজরুলের অনুসরণ। জীবনানন্দ আর সুকান্তে প্রভাবিত যৌবন আটকে যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আঙ্গিনায় পদার্পন মাত্রই। এখানে আধুনিক হবার চেষ্টায় বড় তারাতারি বদলে যায় জীবন। প্রতিবাদে দেবী আর নিগার নামের দুটি কাব্য সংকলন প্রশ্ন তোলে বিবেকবানের মনে। তার কবিতায়, উচ্চারণ শুদ্ধতা আর কবিত্বের আধুনিকায়নের দাবী তুলে তুলে নেন দীক্ষার ভার প্রয়াত নরেণ বিশ্বাস স্যার। স্যারের পরামর্শে প্রথম আলাপ কবি আসাদ চৌধুরী, মুহাম্মদ নুরুল হুদা এবং তৎকালিন ভাষাতত্ব বিভাগের চেয়ারম্যান ড. রাজীব হুমায়ুন ডেকে পাঠান তাকে। অভিনেতা রাজনীতিবিদ আসাদুজ্জামান নূর, সাংকৃতজন আলী যাকের আর সারা যাকের-এর উৎসাহ উদ্দিপনায় শুরু হয় নতুন পথ চলা। ঢাকা সুবচন, থিয়েটার ইউনিট হয়ে মাযহারুল হক পিন্টুর সাথে নাট্যাভিনয় ইউনিভার্সেল থিয়েটারে। শংকর শাওজাল হাত ধরে শিখান মঞ্চনাটবের রিপোটিংটা। তারই সূত্র ধরে তৈরি হয় দৈনিক ভোরের কাগজের প্রথম মঞ্চপাতা। একইসমেয় দর্শন চাষা সরদার ফজলুল করিম- হাত ধরে নিযে চলেন জীবনদত্তের পাঠশালায়। বলেন- মানুষ হও দাদু ভাই, প্রকৃত মানুষ। সরদার ফজলুল করিমের এ উক্তি ছুঁয়ে যায় হৃদয়। সত্যিকারের মানুষ হবার চেষ্টায় তাই জাতীয় দৈনিক রুপালী, বাংলার বাণী, জনকণ্ঠ, ইত্তেফাক, মুক্তকণ্ঠের প্রদায়ক হয়ে এবং অবশেষে ভোরেরকাগজের প্রতিনিধি নিযুক্ত হয়ে ঘুরে বেড়ান ৬৫টি জেলায়। ছুটে বেড়ান গ্রাম থেকে গ্রামান্তরে। ২০০২ সালে প্রথম চ্যানেল আই-্র সংবাদ বিভাগে স্থির হন বটে, তবে অস্থির চিত্ত এরপর ঘনবদল বেঙ্গল ফাউন্ডেশন, আমাদের সময়, মানবজমিন ও দৈনিক যায়যায়দিন হয়ে এখন আবার বেকার। প্রথম আলো ও চ্যানেল আই আর অভিনেত্রী, নির্দেশক সারা যাকের এর প্রশ্রয়ে ও স্নেহ ছায়ায় আজও বিচরণ তার। একইসাথে চলছে সাহিত্য বাজার নামের পত্রিকা সম্পাদনার কাজ।