নাসরীন জাহানের জন্য দেোয়া প্রার্থনা : অর্চি অতন্দ্রিলা

আরিফ আহমেদ

মেয়ে অর্চি বলেন, আমার মায়ের জন্য সবাই দোয়া করুন, দাওয়ার সাজেশন থাকলে জানান।

মেয়ে অর্চি বলেন, আমার মায়ের জন্য সবাই দোয়া করুন, দাওয়ার সাজেশন থাকলে জানান।

সাহিত্য বাজারের নিয়মিত লেখিকা, শুভানুধ্যায়ী ও বন্ধু নাসরীন জাহান গুরুত্বর অসুস্থ।

তার স্বামী আশরাফ আহমেদ ও একমাত্র সন্তান অর্চি অতন্দ্রিলা তাকে নিয়ে হাসপাতাল আর বাড়িতে দৌড়াচ্ছেন নাওয়া খাওয়া ভুলে। মায়ের প্রচণ্ড কষ্ট সইতে না পেরে অর্চি তার ফেসবুক পেইজে লিখেছেন

অর্চি অতন্দ্রিলা

 

03My mother is suffering from severe chest pain since last 3 weeks.
Can anyone suggest a reliable rheumatologist for her?

Or do you know anyone who suffered with a chest joint pain (possibly costochondritis)?

For the info, she was admitted to hospital twice in last 2 weeks but returned home worse with side effects of medicines. Main pain didn’t reduce.

সাহিত্য বাজার পাঠক ও ফেসবুক বন্দুদের কাছে তাই আমাদেরও অনুরোধ – সবাই নাসরীন জাহানের জন্য দোয়া করুন। তারাতারি সুস্থ হয়ে তার লেখনীকে জাগিয়ে তুলুন তিনি। তিনি যে কথা দিয়েছেন, মৃত্যুর আগে হলেও দেশ ও জাতির কাছে দায়বদ্ধতা নিয়ে অমরগাঁথা একটি লেখনী দিয়ে যাবেন আমাদের।

Print Friendly

About the author

ডিসেম্বর ৭১! কৃত্তনখোলার জলে সাঁতার কেটে বেড়ে ওঠা জীবন। ইছামতির তীরঘেষা ভালবাসা ছুঁয়ে যায় গঙ্গার আহ্বানে। সেই টানে কলকাতার বিরাটিতে তিনটি বছর। এদিকে পিতা প্রয়াত আলাউদ্দিন আহমেদ-এর উৎকণ্ঠা আর মা জিন্নাত আরা বেগম-এর চোখের জল, গঙ্গার সম্মোহনী কাটিয়ে তাই ফিরে আসা ঘরে। কিন্তু কৈশরী প্রেম আবার তাড়া করে, তের বছর বয়সে তের বার হারিয়ে যাওয়ার রেকর্ডে যেন বিদ্রোহী কবি নজরুলের অনুসরণ। জীবনানন্দ আর সুকান্তে প্রভাবিত যৌবন আটকে যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আঙ্গিনায় পদার্পন মাত্রই। এখানে আধুনিক হবার চেষ্টায় বড় তারাতারি বদলে যায় জীবন। প্রতিবাদে দেবী আর নিগার নামের দুটি কাব্য সংকলন প্রশ্ন তোলে বিবেকবানের মনে। তার কবিতায়, উচ্চারণ শুদ্ধতা আর কবিত্বের আধুনিকায়নের দাবী তুলে তুলে নেন দীক্ষার ভার প্রয়াত নরেণ বিশ্বাস স্যার। স্যারের পরামর্শে প্রথম আলাপ কবি আসাদ চৌধুরী, মুহাম্মদ নুরুল হুদা এবং তৎকালিন ভাষাতত্ব বিভাগের চেয়ারম্যান ড. রাজীব হুমায়ুন ডেকে পাঠান তাকে। অভিনেতা রাজনীতিবিদ আসাদুজ্জামান নূর, সাংকৃতজন আলী যাকের আর সারা যাকের-এর উৎসাহ উদ্দিপনায় শুরু হয় নতুন পথ চলা। ঢাকা সুবচন, থিয়েটার ইউনিট হয়ে মাযহারুল হক পিন্টুর সাথে নাট্যাভিনয় ইউনিভার্সেল থিয়েটারে। শংকর শাওজাল হাত ধরে শিখান মঞ্চনাটবের রিপোটিংটা। তারই সূত্র ধরে তৈরি হয় দৈনিক ভোরের কাগজের প্রথম মঞ্চপাতা। একইসমেয় দর্শন চাষা সরদার ফজলুল করিম- হাত ধরে নিযে চলেন জীবনদত্তের পাঠশালায়। বলেন- মানুষ হও দাদু ভাই, প্রকৃত মানুষ। সরদার ফজলুল করিমের এ উক্তি ছুঁয়ে যায় হৃদয়। সত্যিকারের মানুষ হবার চেষ্টায় তাই জাতীয় দৈনিক রুপালী, বাংলার বাণী, জনকণ্ঠ, ইত্তেফাক, মুক্তকণ্ঠের প্রদায়ক হয়ে এবং অবশেষে ভোরেরকাগজের প্রতিনিধি নিযুক্ত হয়ে ঘুরে বেড়ান ৬৫টি জেলায়। ছুটে বেড়ান গ্রাম থেকে গ্রামান্তরে। ২০০২ সালে প্রথম চ্যানেল আই-্র সংবাদ বিভাগে স্থির হন বটে, তবে অস্থির চিত্ত এরপর ঘনবদল বেঙ্গল ফাউন্ডেশন, আমাদের সময়, মানবজমিন ও দৈনিক যায়যায়দিন হয়ে এখন আবার বেকার। প্রথম আলো ও চ্যানেল আই আর অভিনেত্রী, নির্দেশক সারা যাকের এর প্রশ্রয়ে ও স্নেহ ছায়ায় আজও বিচরণ তার। একইসাথে চলছে সাহিত্য বাজার নামের পত্রিকা সম্পাদনার কাজ।