অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০১৭: আবেদনপত্র জমা ও সংগ্রহের শেষদিন

আরিফ আহমেদ

স্টল বরাদ্দের আবেদন সংগ্রহ ও জমার জন্য প্রকাশকদের ভীড়।

স্টল বরাদ্দের আবেদন সংগ্রহ ও জমার জন্য প্রকাশকদের ভীড়।

অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০১৭ তে অংশ নিতে আবেদনপত্র জমা ও সংগ্রহের আজই (২৮ ডিসেম্বর) শেষ দিন। অন্যসব প্রকাশনী সংস্থার পাশাপাশি সাহিত্য বাজার এবারও স্টল পাবার চেষ্টায় আবেদনপত্র সংগ্রহ ও জমা দেয়ার কাজ শেষ করেছে। বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক বরাবরে পৃথক আবেদনের মাধ্যমে এ আবেদন জমা দেয় সাহিত্য বাজার।

এর আগে, বুধবার বিকালে একাডেমির সভাকক্ষে ‘অমর একুশে গ্রন্থমেলা -২০১৭’ এর নিয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সঙ্গে প্রস্তুতিমূলক এক সভায় বইমেলার প্রাকপ্রস্তুতি নিয়ে নানা প্রস্তাবনা ও নির্দেশনাও প্রদান করা হয়েছে। সে সভায় অন্যদের মধ্যে সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, সংস্কৃতিসচিব আকতারী মমতাজ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক আমজাদ আলীসহ রমনা ও শাহবাগ থানার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

02

বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান

গত  ঝড়-বৃষ্টিতে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার পাশাপাশি অগ্নিকাণ্ডের মতো ঝুঁকির ঘটনায় প্রতিটি স্টলের জন্য এবার বীমার ব্যবস্থা থাকছে বলে জানিয়েছেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান।

বৃষ্টিতে মেলা প্রাঙ্গণে জমে থাকা পানি দর্শনার্থীদের বিড়ম্বনার কারণ হয়, সভার পর বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান জানান, মেলার এই প্রস্তুতি সভায় আলোচনার মধ্য দিয়ে বেশ কিছু নতুন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।“প্রতিবছর বইমেলার সময় বৃষ্টিতে ভিজে প্রচুর বই নষ্ট হয়। সেটা ঠেকাতে এবার বইমেলার স্টলে ত্রিপলের পরিবর্তে ছাউনি হবে টিনের। অগ্নি-ঝড় ঝুঁকির জন্য প্রতিটি স্টলের জন্য থাকছে বীমা।”

এবারের বইমেলায় বাংলা একাডেমি বঙ্গবন্ধুর কারাবাস নিয়ে ‘কারাগারের রোজনামচা’ প্রকাশ করবে বলে সভায় জানান একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান।

12তিনি বলেন, এবারের বইমেলায় সাহিত্য উৎসব বড় আঙ্গিকে করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, যেখানে বিশ্বের নানা দেশের সাহিত্যিকরা অংশ নেবেন।প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেব্রুয়ারি মাসজুড়ে বইমেলা চলাকালীন সময়ে হতে যাওয়া এই সাহিত্য উৎসবের সুনির্দিষ্ট দিন ঘোষণা করা হবে বলে জানান একাডেমির মহাপরিচালক।

শামসুজ্জামান খান সাংবাদিকদের জানান, এবার পুরো বইমেলাকে ১২টি ভাগে করা হবে, থাকবে ৫৬৩টি ইউনিট; প্যাভিলিয়ন থাকবে ১৩টি। সোহরাওয়ার্দীর ভেতরে উদ্যানের রাস্তাটি এবার ১৬ ফিটের থেকে বাড়িয়ে ২৫ ফিট প্রশস্থ করা হচ্ছে। গাছ ও ফুল দিয়ে নানন্দিকভাবে সাজানো হবে গোটা বইমেলা প্রাঙ্গণ। দোয়েল চত্বরে ৩৫-৫০ ফুটের ইলেকট্রনিক বোর্ডে বইমেলার নির্দেশিকা থাকবে।

বাংলা একাডেমির মূল প্রাঙ্গণ আর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে তিনটি করে প্রবেশ পথ ও বাহির পথ থাকবে। বাংলা একাডেমির সঙ্গে সোহরাওয়ার্দীর মেলাটি যেন বিচ্ছিন্ন মনে না হয় সেজন্য থাকবে বিশেষ সংযোগ।

এ লক্ষ্যে বাংলা একাডেমি কাজ করছে বলেও জানান তিনি।

এছাড়া গতবার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে কোনো খাবার স্টল ছিল না জানিয়ে শামসুজ্জামান খান বলেন, এবার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের ভেতর দুটি খাবার স্টল রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

পুরো এলাকা সিসি ক্যামেরার আওতায় আনার পাশাপাশি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকার গাড়িগুলোতে স্টিকার থাকবে।

Print Friendly

About the author

ডিসেম্বর ৭১! কৃত্তনখোলার জলে সাঁতার কেটে বেড়ে ওঠা জীবন। ইছামতির তীরঘেষা ভালবাসা ছুঁয়ে যায় গঙ্গার আহ্বানে। সেই টানে কলকাতার বিরাটিতে তিনটি বছর। এদিকে পিতা প্রয়াত আলাউদ্দিন আহমেদ-এর উৎকণ্ঠা আর মা জিন্নাত আরা বেগম-এর চোখের জল, গঙ্গার সম্মোহনী কাটিয়ে তাই ফিরে আসা ঘরে। কিন্তু কৈশরী প্রেম আবার তাড়া করে, তের বছর বয়সে তের বার হারিয়ে যাওয়ার রেকর্ডে যেন বিদ্রোহী কবি নজরুলের অনুসরণ। জীবনানন্দ আর সুকান্তে প্রভাবিত যৌবন আটকে যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আঙ্গিনায় পদার্পন মাত্রই। এখানে আধুনিক হবার চেষ্টায় বড় তারাতারি বদলে যায় জীবন। প্রতিবাদে দেবী আর নিগার নামের দুটি কাব্য সংকলন প্রশ্ন তোলে বিবেকবানের মনে। তার কবিতায়, উচ্চারণ শুদ্ধতা আর কবিত্বের আধুনিকায়নের দাবী তুলে তুলে নেন দীক্ষার ভার প্রয়াত নরেণ বিশ্বাস স্যার। স্যারের পরামর্শে প্রথম আলাপ কবি আসাদ চৌধুরী, মুহাম্মদ নুরুল হুদা এবং তৎকালিন ভাষাতত্ব বিভাগের চেয়ারম্যান ড. রাজীব হুমায়ুন ডেকে পাঠান তাকে। অভিনেতা রাজনীতিবিদ আসাদুজ্জামান নূর, সাংকৃতজন আলী যাকের আর সারা যাকের-এর উৎসাহ উদ্দিপনায় শুরু হয় নতুন পথ চলা। ঢাকা সুবচন, থিয়েটার ইউনিট হয়ে মাযহারুল হক পিন্টুর সাথে নাট্যাভিনয় ইউনিভার্সেল থিয়েটারে। শংকর শাওজাল হাত ধরে শিখান মঞ্চনাটবের রিপোটিংটা। তারই সূত্র ধরে তৈরি হয় দৈনিক ভোরের কাগজের প্রথম মঞ্চপাতা। একইসমেয় দর্শন চাষা সরদার ফজলুল করিম- হাত ধরে নিযে চলেন জীবনদত্তের পাঠশালায়। বলেন- মানুষ হও দাদু ভাই, প্রকৃত মানুষ। সরদার ফজলুল করিমের এ উক্তি ছুঁয়ে যায় হৃদয়। সত্যিকারের মানুষ হবার চেষ্টায় তাই জাতীয় দৈনিক রুপালী, বাংলার বাণী, জনকণ্ঠ, ইত্তেফাক, মুক্তকণ্ঠের প্রদায়ক হয়ে এবং অবশেষে ভোরেরকাগজের প্রতিনিধি নিযুক্ত হয়ে ঘুরে বেড়ান ৬৫টি জেলায়। ছুটে বেড়ান গ্রাম থেকে গ্রামান্তরে। ২০০২ সালে প্রথম চ্যানেল আই-্র সংবাদ বিভাগে স্থির হন বটে, তবে অস্থির চিত্ত এরপর ঘনবদল বেঙ্গল ফাউন্ডেশন, আমাদের সময়, মানবজমিন ও দৈনিক যায়যায়দিন হয়ে এখন আবার বেকার। প্রথম আলো ও চ্যানেল আই আর অভিনেত্রী, নির্দেশক সারা যাকের এর প্রশ্রয়ে ও স্নেহ ছায়ায় আজও বিচরণ তার। একইসাথে চলছে সাহিত্য বাজার নামের পত্রিকা সম্পাদনার কাজ।