অবৈধ প্রবেশকারী

সাহিত্য বাজার

Sharing is caring!

kabbo

সংবাদ : বিডিআরের সাবেক মহাপরিচালক  মেজর জেনারেল (অবঃ) ফজলুর রহমান ১৫ সেপ্টেম্বর একটি টেলিভিশন টকশোতে বলেছেন, ২০০১ সালে বাংলাদেশে বৈধ ও অবৈধ ভারতীয় প্রবেশকারীর সংখ্যা ছিল ৫ লাখ। বর্তমানে তা ১০ লাখে উন্নীত হয়েছে। এরা সবাই গুলশান, বনানী ও বারিধারায় বসবাস করছে। সরকার অজ্ঞাত কারণে এদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না।

কে গুলি করে মারে ভারতীয় সেনা
বুড়িমারী ও রৌমারী সীমান্তে প্রতিদিন ঝোলে লাশ
বিশ্বের সবচেয়ে বিপদজনক সীমান্ত ভারত-বাংলাদেশ
ইতিহাসে স্থায়ীত্বের পেয়েছে চির আশ্বাস।
ফেলানী হত্যার বিচার নাটকে হাসছে বিশ্ব বিবেক
অনুপ্রবেশকারী ছিল না সে, ছিল বহিঃকারীনী কিশোরী এক।

ভারতের কাছে বাংলাদেশ বরাবরই ছিল না বিবেচনায়
বাংলাদেশের কাছে ভারতীয়রা এখনো সর্বময়।
স্কয়ার, প্রাণ, কিম্বা সেলফোন কোম্পানী যত
খুজে দেখ তাদের বড় বড় পদে বসে আছে ভারতীয় নাগরিক যত।
গুলশান, বনানী আর বারিধারায়
মার্চেন্ডাইজার কোম্পানীগুলো সবই তাদের কবজায়
পোশাক শিল্পের বারটা বাজাঁতে
এ দেশে বসে এদেশের খাতে
চলছে তাদের ষড়যন্ত্র
কে রাখে হিসেব
কতজন তারা বৈধ এসেছে, কতজন অবৈধ।

Print Friendly, PDF & Email

Sharing is caring!